গেজেট ব্যবহারের সুবিধা ও অসুবিধা (Gadgets:Merits & Demerits)


merits and demerits of gadgets

আমাদের দৈনন্দিন জীবন সহজ আর সরল করতে গেজেটের ব্যবহার এর গুরুত্ব বলার অপেক্ষা রাখে না। আমাদের জীবনের সবকিছুই এখন আধুনিক প্রযুক্তির সাথে গভীরভাবে সংযুক্ত।স্বভাবত মনে প্রশ্ন আসতে পারে,আসলে গেজেট আমাদের জীবনকে সহজ করতেছে?আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের ইতিবাচক বা নেতিবাচক দিক গুলো কি কি??

গেজেট আমাদের জীবনকে করেছে সহজ এবং স্বল্প সময় সাপেক্ষ যা প্রাচীন সময়ে আমরা কল্পনাও করতে পারতাম না।মানুষ,বিশেষভাবে শিশু,কিশোর আর বৃদ্ধ সবাই এখন প্রতিযোগীতায় লিপ্ত কার থেকে কে বেশি দ্রুততার সাথে কাজ সারতে পারে।আমাদের জীবনটা এখন সংযুক্ত কিছু আধুনিক গেজেটের সাথে,যেমন;র্স্মাট ফোন,নোটবুক,আইপড,টেলিভিশন ইত্যাদি।

গেজেট ব্যবহারের উপকারিতা:

  • সেল ফোন/র্স্মাট ফোনঃ বন্ধুবান্ধব,পরিবার আর সবার সাথে যোগাযোগ রাখতে ।
  • ল্যাপটপঃসারাক্ষণ ইন্টারনেটে সংযুক্ত থাকতে,প্রয়োজনীয় কাজ দ্রুততার সাথে সারতে।
  • টেলিভিশনঃআমাদের জানায় সকল খবর আর বার্তা।
  • ইলেকট্রিক স্টোভঃ কম সময়ে আর সহজে আমাদের রান্না বান্না সারতে।
  • ওয়াশিং মেশিনঃকাপড় দ্রুততার সাথে ধোয়া আর শুকানোর জন্য।

এ রকম হাজার হাজার উদাহরণ দেয়া যাবে আর একটাই মূল কথা গেজেট বা আধুনিক প্রযুক্তি আমাদের জীবনকে করেছে সহজ আর দ্রুত।

গেজেট ব্যবহারের অপকারিতা:

  • গেজেট অনেক সময় আমাদের কে পরনির্ভরশীল করে তোলে।
  • মানিসক অবস্থায় মারাত্নক প্রভাব ফেলে,বিশেষ করে শিশুদের।
  • আমাদের নির্ভরশীলতা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে,মানুষ এখন অনেক অলস,কোনো কাজ গেজেট ছাড়া করতে চায় না।
  • মানুষকে আসক্ত করে তোলে,বিশেষ করে গেমিং বা সামাজিক যোগাযোগ সাইটে।
  • যখন আসক্ত হয়ে পড়ে তখন পড়াশুনা বা কাজে মারাত্নক প্রভাব পড়ে।
  • তাছাড়াও প্রযুক্তি ব্যবহারের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তো আছেই।